1. mahi20718@gmail.com : mahi :
  2. saniurrahman44@gmail.com : Kaler Kollol : Kaler Kollol
  3. saniurrahman44@gmail.com : saniur rahman : saniur rahman
  4. shuvoahammed609@gamil.com : Saiful Islam : Saiful Islam
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০, ০৩:২৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
জিয়া-খালেদা-তারেক সবার হাতেই রক্তের দাগ: প্রধানমন্ত্রী আইন হাতে তুলে নেয়া বিতর্কিত বেস্টটিমের মিলি ও তার স্বামী মোস্তাফিজ গ্রেফতার প্রধান দুই আসামীর দায় স্বীকার, প্রদীপের ফের রিমান্ড বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের শ্রদ্ধা নিবেদন সাতক্ষীরা কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা, দোষীদের শাস্তির দাবিতে জেলা আ’লীগের মানববন্ধন দোষ স্বীকার করে জবানবন্দিতে যা বললেন লিয়াকত এইচ এস সি পরীক্ষার গুজবে কান না দেওয়ার আহবান শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের দীর্ঘ এক বছর পর আজ থেকে উখিয়া টেকনাফে থ্রিজি-ফোরজি চালু হয়ে জাতীয় শোক দিবস আজ অভিযোগ প্রমাণ হলে প্রদীপের ছাড় নেই- আইনমন্ত্রী
শিরোনাম
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ধর্ষণের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশ সৃজন সাহিত্য সংগঠনের ৬ষ্ঠ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন শিক্ষা দিবস উপলক্ষে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্রমৈত্রীর আলোচনা সভা পোরশায়  ৯০ বোতল ফেনসিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক মুজিব বর্ষ উপলক্ষে “বন্ধন” এর উদ্যোগে ফ্রি ব্লাড গ্রুপ ক্যাম্পেইন ও আলোচনা সভা রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশে চালু হলো বডি ওর্ন ক্যামেরা ভবদহ অঞ্চলের ছোট বড় অসংখ্য মৎস্য ঘের ও পুকুর ভেসে গেছে, ঘের মালিকরা দিশেহারা  চট্রগ্রামে ফুটপাত অবৈধ দখলমুক্ত করতে মাইকিং প্রচারনায় চসিক প্রশাসক নাসিরনগর ধরমণ্ডল ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে এক হাজার বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন রসিকের ৮৮৯ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা, স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ খাতে বিশেষ বরাদ্দ
সর্বশেষ করোনা ভাইরাস আপডেট
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
২,৯৪৯
৩৭
২,৮৬২
১৩,৪৮৮
সর্বমোট
১৭৮,৪৪৩
২,২৭৫
৮৬,৪০৬
৯০৪,৫৮৪

দেশরত্নের অকুতোভয় সৈনিক ছাত্রলীগের প্রত্যয়

  • রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০
  • ৭৬ বার পড়া হয়েছে

রিয়াদুল ইসলামঃ

 

সানজিদ আল প্রত্যয়, শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের এক পরিচিত ও পরিশ্রমি মুখ। রাজনৈতিক পরিবার থেকে তার উত্থান। দাদা আইজউদ্দিন মাস্টার খ্যাতিমান শিক্ষক। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন রনাঙ্গনের যোদ্ধাদের সাহায্য করেছেন কাছে থেকে। দাদা তার ছোট ভাই আখতার হোসেন কে পাঠান যুদ্ধে, দেশ মুক্ত করতে যুদ্ধরত অবস্থায় হানাদার দের হাতে শহীদ হোন আখতার।

প্রত্যয়ের বাবা মাহাবুব রানা ছিলেন শেরপুর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি, ছিলেন জেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি ছিলেন। বর্তমানে পৌর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দায়িত্বরত।

সেই ছোট থেকে বুঝবান হওয়ার পর থেকেই দাদার কাছে এসব যুদ্ধের গল্প শুনতো প্রত্যয়। ছেলেবেলায় বাসায় আওয়ামীনেতাদের যাতায়াত দেখে তাদের কাছেও ছুটে যেতো মাঝে মাঝে বিভিন্ন প্রশ্ন নিয়ে।

এসব প্রশ্ন আর উত্তরের কষাকষিতেই থেমে ছিলো না সে। মনে মনে পণ করে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তির হাতকে শক্তিশালী করতে মাঠে কাজ করবে বড় হয়ে। দাদা মারা যাওয়ার পর জেলা মহিলা সংস্থার সভানেত্রী দাদীর হাত ধরে বিভিন্ন নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে বেড়ায় বাড়িতে বাড়িতে।

মাঠ পর্যায়ের রাজনীতিতে অংশ নেওয়া হয় প্রত্যয়ের স্কুল জীবনে ২০০৮ এর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে, এলাকায় আওয়ামী ভাইদের সাথে ছিলেন অপশক্তির হাত থেকে কেন্দ্র পাহাড়া ও রক্ষা করতে, ছিলেন বিজয় মিছিল পর্যন্ত। এখান থেকে তার শুরু বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার জন্য মাঠে কাজ করা।এভাবে দিনের পর দিন মাঠ পর্যায়ে একটিভ হয়ে যায় বিভিন্ন মিছিল মিটিংয়ে উপস্থিতির মাধ্যমে।

পিছন থেকে স্লোগান ধরা প্রত্যয় কিছুদিনের মাঝেই নিজের ত্যাগ তিতিক্ষার মাধ্যমে চলে আসেন সামনের কাতারে এবং নিজেই বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা, ছাত্রলীগের পক্ষে স্লোগান দেওয়া শুরু করে মিছিলে মিছিলে।রাতদিন ছাত্রলীগের বিভিন্ন প্রোগ্রামে উপস্থিত হতো, নেতাদের সাথে টঙের এক কাপ চা তেই ক্ষিধা মিটাতেন মাঝে মাঝে। এভাবে মাঠপর্যায়ে কাজ করে সবার নজরে আসে প্রত্যয়।

২০১৩ সালে শেরপুর জেলা ছাত্রলীগের পূর্নাঙ্গ কমিটিতে পদ পেয়ে যায় ‘উপ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক’হিসেবে। এর পর থেকে ছাত্রলীগের প্রতি তার ত্যাগ আরো বেড়ে যায়। তার ছাত্ররাজনীতির হাতেখড়ি দেওয়া সভাপতি জুনায়েদ নূরানি মনির সাথে বিভিন্ন মিছিল মিটিংয়ের নেতৃত্বে আরো কর্মঠ হয়ে উঠে। ২০১৪ সালে জামায়াত বিএনপির অগ্নিসন্ত্রাস রুখতে সর্বদা মাঠে তৎপর ছিলেন।সবসময় নির্যাতীত নেতাকর্মীদের পাশে থাকতো।দশম সংসদ ও একাদশ সংসদ নির্বাচনে শেরপুরের বিভিন্ন কেন্দ্র ও স্থানে আওয়ামীলীগকে জেতাতে নিরলস ভাবে কাজ করে যায়।এরপর বিভিন্ন মিছিল সংগ্রামে সর্বদা ছাত্রলীগের হয়ে আওয়ামিলীগের পক্ষে মাঠে কাজ করে যায়।

বিভিন্ন এলাকায় ছাত্রলীগের কর্মী তৈরির পাশাপাশি মানবিকগুন সম্পন্ন প্রত্যয় কারো অসহায়ত্বের খবর পেলেই ছুটে যান সেই ব্যাক্তির কাছে, নিজে সাধ্যমত সহায়তা করেন আর নেতাদের অনুরোধ করেন সহায়তার ব্যবস্থা করেন। দূর্ঘটনা ও অসুস্থতাজনিত কেউ রক্তের প্রয়োজনে যোগাযোগ করলে ছুটে যান জীবন বাচাতে গ্রুপ মিলে গেলে সেই দেয় বা অন্য গ্রুপের হলে ডোনারও যোগাড় করে দেয়। অসহায় ছাত্রদের নিজের অর্থায়নে বইও কিনে দেন।

কিছুদিন আগে আওয়ামীলীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গরীব অসহায় কৃষক দের ধান কেটে দেওয়ার কর্মসূচি গ্রহন করেন। এই কর্মসূচিতে জেলা ছাত্রলীগের সহযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে প্রত্যয় ছুটে যান শেরপুরের বিভিন্ন এলাকায় ধান কাটতে। ধান কেটে দেন সদরের বাজিতখিলা, পাকুরিয়া, লসমুনপুর এলাকায়। ধান কেটে দিয়ে আসেন সদরের বাইরে ঝিনাইগাতি উপজেলার এক প্রান্তিক কৃষকের।

সানজিদ আল প্রত্যয় বলেন,”আমি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। আমার দাদার নেতা ছিলেন বঙ্গবন্ধু। আর বর্তমান প্রজন্মে আমার নেতা বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা। বিগত দিনে যেমন দলের জন্য কাজ করেছি সামনেও করতে চাই। আমি ছোট বেলা থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত। ফলশ্রুতিতে দলের প্রয়োজনে পাশে থাকার আপ্রান চেষ্টা করেছি। জননেত্রী শেখ হাসিনার পথ নির্দেশনায় ছাত্রলীগের সহযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে নিঃসার্থভাবে সর্বদা কাজ করে যেতে চাই।”

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন