1. [email protected] : mahi :
  2. [email protected] : Kaler Kollol : Kaler Kollol
  3. [email protected] : saniur rahman : saniur rahman
  4. [email protected] : Saiful Islam : Saiful Islam
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ১০:৩৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
শিক্ষাখাতে বাজেটের ২৫% , জিডিপির ৮% বরাদ্দ ও প্রাইভেট ভার্সিটির উপর ১৫% ভ্যাট বাতিলের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ছাত্র মৈত্রী’র মানববন্ধন নিখোঁজ হওয়ার নয় দিন পর ঢাবি ছাত্র মূকাভিনয় শিল্পী হাফিজুর রহমান এর মরদেহ উদ্ধার হেফাজতের ধ্বংসযজ্ঞ: মামলা না নিলে আদালতে যাবেন এমপি মোকতাদির চৌধুরী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জিয়া-খালেদা-তারেক সবার হাতেই রক্তের দাগ: প্রধানমন্ত্রী আইন হাতে তুলে নেয়া বিতর্কিত বেস্টটিমের মিলি ও তার স্বামী মোস্তাফিজ গ্রেফতার প্রধান দুই আসামীর দায় স্বীকার, প্রদীপের ফের রিমান্ড বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের শ্রদ্ধা নিবেদন সাতক্ষীরা কলারোয়ায় শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা, দোষীদের শাস্তির দাবিতে জেলা আ’লীগের মানববন্ধন দোষ স্বীকার করে জবানবন্দিতে যা বললেন লিয়াকত
শিরোনাম
শিক্ষাখাতে বাজেটের ২৫% , জিডিপির ৮% বরাদ্দ ও প্রাইভেট ভার্সিটির উপর ১৫% ভ্যাট বাতিলের দাবিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া ছাত্র মৈত্রী’র মানববন্ধন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রেল যাত্রা বিরতির দাবিতে সন্ত্রাস প্রতিরোধে মঞ্চের মানববন্ধন ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশনের কার্যক্রম দ্রুত চালু এবং হেফাজতের দায়ী শীর্ষ নেতাদের বিচার দাবিতে শনিবার মানববন্ধন ছাত্র মৈত্রী’র দাবি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি মেডিকেল কলেজ: চলছে ভার্চুয়াল আলোচনা ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকারি মেডিকেল কলেজের দাবিতে শিক্ষামন্ত্রীকে স্মারক লিপি নিখোঁজ হওয়ার নয় দিন পর ঢাবি ছাত্র মূকাভিনয় শিল্পী হাফিজুর রহমান এর মরদেহ উদ্ধার হেফাজতের ধ্বংসযজ্ঞ: মামলা না নিলে আদালতে যাবেন এমপি মোকতাদির চৌধুরী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি গণ সাংস্কৃতিক মৈত্রী’র বসন্ত বরণ ব্রাহ্মণবাড়িয়া গণ সাংস্কৃতিক মৈত্রী’র পাক্ষিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

জিয়া-খালেদা-তারেক সবার হাতেই রক্তের দাগ: প্রধানমন্ত্রী

  • বুধবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ২৩৩ বার পড়া হয়েছে

কালের কল্লোল ডেস্কঃ

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জিয়াউর রহমানের যে চরিত্র সেই একই চরিত্র তার স্ত্রী খালেদা জিয়ারও। একের পর এক হত্যাকাণ্ড, অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে কত মানুষকে হত্যা এবং সেগুলোর বিচার বন্ধে ইনডেমনিটি আইন করেছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের ইনডেমনিটি দিয়ে খুনিদের পুরস্কৃত করেছিল জিয়াউর রহমান। আর খালেদা জিয়া ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসেই অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে যাদের দিয়ে মানুষ হত্যা করেছে তাদের ইনডেমনিটি দিয়ে পুরস্কৃত করেছে। তারা এভাবেই রাজনীতি করেছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গুম-খুনের কথা যারা বলে তাদের প্রশ্ন, এই গুম-খুন শুরু করেছে কে? এটা তো জিয়াউর রহমানই শুরু করেছে। সেনাবাহিনীর অফিসাররা ছুটিতে ছিল, চলে আসছে, তাদের মেরে ফেলেছে। তাদের পরিবার লাশও পায়নি। সাধারণ সৈনিক, তাদের হত্যা করেছে, তাদের পরিবার লাশ পায়নি। তারা একটা চাকরিও পায়নি। অমানবিক জীবনযাপন করেছে। এভাবে সারা দেশকে রক্তাক্ত করেছে শুধু ক্ষমতা নিষ্কণ্টক করার জন্য। শিক্ষাদীক্ষা তো নাই। শুধু গুণ্ডামি আর অত্যাচার, খুনের রাজনীতি কায়েম করতে চেয়েছিল। তাদের অপকর্ম ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।’

জাতির পিতাকে হত্যা করে তারা ভেবেছিল নাম মুছে ফেলবে, আমাদের বিজয়ের ইতিহাস মুছে ফেলবে। লাখো শহীদের মহান ত্যাগ সেটাও মুছে ফেলবে, লাখো মা বোনেরা, তাদের ওপর কী নির্মম অত্যাচার করেছে সেটাও মুছে ফেলবে। যে আদর্শের ওপর দেশ স্বাধীন সেই আদর্শটাই তার ধ্বংস করতে চেয়েছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে দেশ গড়ে তোলার জন্য কাজ করছে। যে কারণে সরকার গঠনের পর তো প্রতিশোধ নিতে যাইনি। আমরা দেশের উন্নয়নের দিকে নজর দিয়েছি। শিক্ষাদীক্ষার দিকে নজর দিয়েছি। দেশের সম্মান ফেরানোর চেষ্টা করছি।’

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ৩১ আগস্ট ২০২০ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা সভায় যুক্ত হন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আরো সংবাদ পড়ুন